কুষ্টিয়াশহর.কম এর পক্ষ হতে আপনাকে শুভেচ্ছা। বাংলা তথ্য ভান্ডার সমৃদ্ধ করতে আমাদের এই প্রয়াস। ইতিহাস এবং ঐতিহ্যর তথ্য দিতে চাইলে ক্লিক করুন অথবা ফোন করুনঃ- ০১৯৭৮ ৩৩ ৪২ ৩৩

Select your language

ফকির নিজামুদ্দিন শাহ্‌ | Fokir Nijamuddin Shah
ফকির নিজামুদ্দিন শাহ্‌ | Fokir Nijamuddin Shah

পুরো নাম ফকির নিজামুদ্দিন শাহ্‌, ডাক নাম নিজাম, ছেউড়িয়াতেই জন্ম বাংলা ১৩২৯ সালে। একুশ-বাইশ বছর বয়সে কুষ্টিয়া মোহিনী মিলে চাকুরী করতেন। চাকুরী বলতে তাঁতের কাজ।

মিল থেকে ছুটি হলে পায়ে হেঁটে লালনের আঁখরায় আসতেন, বসে বসে গান শুনতেন। গানের গভীরকথা তাঁকে আত্নসাবধান করতো, ভুলিয়ে দিত তাঁর সৃষ্টি যন্ত্রণা। তাঁর মতে লালনের গান উগ্রমনে নম্রতা আনে, গানই তাঁর দিল খুলে দেয়, গানেই বোঝা যায় কোনটা মরা, কোনটা বাঁচা। গানের সুরের চেয়ে গানের সারকথাই তাঁর কাছে মহৎ।

ফকির নিজামুদ্দিন শাহ্‌ | Fokir Nijamuddin Shah

তাঁর দীক্ষাগুরু ফকির কোকিল শাহ্‌ অবিবাহিত ছিলো, নিঃসন্তান কোকিলের সেবাদাসীর নাম যশোধা ফকিরানী; পৈত্রিক সম্পত্তির সবই ব্যয় করে যান সাধু সেবায়। ফকির নিজামুদ্দিন আজ থেকে পঁয়তাল্লিশ বছর আগে খেলাফত গ্রহণ করেন, সেই থেকেই সংসারের হিসেব চুকে দিয়ে সৃষ্টি ছাড়া। লালনের সমাধি ঘরের ভিতরে পরে আছেন দীঘ সময়।

লালনের প্রতি তাঁর ভক্তির বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে সে জানায়

“দেখেন তো কথাঃ তাঁর জন্যই তো সম্পূর্ণ জীবন যৌবন অর্পণ করেছি”

চোখ বন্ধ করলে গুরু কোকিল শাহ্‌কে পরিষ্কার দেখতে পাই। নিজামউদ্দিন অল্প আহার করেন, খালি পায়ে হাঁটেন, বয়স তাঁকে দাড় করে দিয়েছে পচাশি বছরে। লালন ছাড়া অন্য কোন নেশা নেই; আমন কি চা পযন্ত খান না।

সারাদিন লালনের সমাধি ঘরের ভিতর কি করেন, জানতে চাইলে সে বলে –

ওমন বলরে সদাই
লা-ইলাহা ইল্লাল লাহ।
Add comment

ইতিহাস এর নতুন প্রবন্ধ

সর্বশেষ পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

তথ্য সম্পর্কে খবর

আমাদের নিউজলেটার সাবস্ক্রাইব করুন এবং আপডেট থাকুন
আমরা কুকিজ ব্যবহার করি
আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে কুকিজ ব্যবহার করি। তাদের মধ্যে কিছু সাইট পরিচালনার জন্য অপরিহার্য, অন্যরা আমাদের এই সাইট এবং ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতা উন্নত করতে সাহায্য করে (কুকিজ ট্র্যাক করা)। আপনি কুকিজকে অনুমতি দিতে চান কিনা তা আপনি নিজেই সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। দয়া করে মনে রাখবেন যে আপনি যদি সেগুলি প্রত্যাখ্যান করেন তবে আপনি সাইটের সমস্ত কার্যকারিতা ব্যবহার করতে পারবেন না।